আবাসিক হোটেল নয় দেহ ব্যবসা হচ্ছে নিজের বাসায়

আবাসিক হোটেল নয় দেহ ব্যবসা হচ্ছে নিজের বাসায়

আবাসিক হোটেল নয় দেহ ব্যবসা হচ্ছে নিজের বাসায়

নবগঠিত ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নে নতুন অফিসের নানা স্থানে জমে উঠছে জোয়া, মাদক ও যৌন ব্যবসা। শুধু রাতের আধারেই নয় ! নিয়মিত এলাকায় এ ব্যবসা চলছে দিনের আলোতেও। তবে এটা নতুন কিছু নয়! উক্ত ইউনিয়নের এক নাম্বার ওয়াড সহ শুরু করে নতুন অফিস বাজারের রিফাত সড়কের ভাড়া বাসাতে ও উক্ত বাজারের উত্তর পাশের ভাড়া বাসাতে এ ব্যবসা চলছে বলে জানা গেছে। তবে এই সব এলাকায় মাদক ও যৌন ব্যবসা পরিচালিত হয় বিশেষ গোপনীয়তার সাথে ভিন্ন আঙ্গিকে !

নিজ বাসায় নিজের স্বামির বন্ধু বলে নিয়মিত মানুষের আনাগুনা দেখা মিলে,কেউ জানতে চাইলে স্বামির বন্ধু বলে জানান এলাকাবাসিকে, এইছাড়া উক্ত বাজারের আশপাশে বাসা ভাড়া করে চলছে মাদক ও যৌন ব্যবসা। সেখানে দিনে রাতে যাতায়াত করে বিশেষ ধরনের খদ্দের। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এ সবের অন্তরালে থাকে মাকদ ও যৌন ব্যবসার। আর এ ব্যবসার প্রধান মাধ্যম হচ্ছে মোবাইল ফোন ও দালাল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নতুন অফিস বাজার সমিতির একজন সদস্য জানান, আমরা একদিন ফরিদা বেগম ( ফেরুনি ) কে গাজাসহ হাতেনাতে আটক করি,পরে আমরা ঈদগাঁও থানার ইনচার্জ আশরাফুল জামান কে জানিয়েছিলাম,ওনি আটককৃত মাদক (গাজা) আগুনে পুড়িয়ে ফেলে সেই মহিলা থেকে আর মাদক ব্যবসা করবে না বলে স্টাম্প নিয়ে ছেড়ে দিতে বলেন। নতুন অফিস এলাকাতে প্রায় সব জায়গাতেই এ ব্যবসা চলছে বলে জানা যায়।

See also  রাজশাহীর মেঘনা হোটেলে চলছে দেহ ব্যবসা