আবাসিক হোটেলে প্রেমিক-প্রেমিকা (gf/bf) পুলিশের হাতে আটক হলে কী ধরনের শাস্তি হয়?

আবাসিক হোটেলে প্রেমিক-প্রেমিকা পুলিশের হাতে আটক হলে কী ধরনের শাস্তি হয়?

বাংলাদেশ দন্ডবিধি আইনের নিম্ন লিখিত ধারায় অভিযুক্ত করতে পারে।

ধারাঃ ২৯০। সর্বসাধারণের আপদ সৃষ্টি করা

কোন ব্যক্তি যদি জনসাধারণের বিরক্তি সৃষ্টিকারী এমন কোন কার্য করে, যার জন্য এই বিধিতে অপর কোন বিধান করা হয় নাই, তবে সে ব্যক্তি দুই শত টাকা পর্যন্ত যেকোন পরিমাণ অর্থ দণ্ডে দণ্ডিত হবে

আবাসিক হোটেলে প্রেমিক-প্রেমিকা পুলিশের হাতে আটক হলে কী ধরনের শাস্তি হয়?

আইনত তেমন কোনো শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে না। কিন্তু বেআইনিভাবে অনেক শাস্তিই পেতে হবে মানে আবাসিক হোটেলে হয়রানির স্বীকার হতে পারেন

যেমন- মানসম্মানের ভয় দেখিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা আদায় করা হতে পারে। আবার বাসায় যোগাযোগ করে ফ্যামিলি হয়রানি করা হতে পারে। তাই গার্লফ্রেন্ড/বয়ফ্রেন্ড নিয়ে আবাসিক হোটেলে না যাওয়াই ভালো। সবচেয়ে ভালো হয় নিজেদের বাসায় সময় কাটালে। সেটা সম্ভব না হলে বন্ধু বা বান্ধবী যারা ব্যাচেলর থাকে তাদের বলে ম্যানেজ করতে পারেন। এখানেও কিন্তু রিস্ক আছে, তবে পুলিশি হয়রানি থেকে রেহাই পাবেন। রিস্ক হচ্ছে আপনাদের কার্যকলাপ গোপন স্পাই ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করা হতে পারে। পরে সেগুলো ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার নাম করে ব্লাকমেইল করা হতে পারে।বর্তমানে এগুলো অহরহ ঘটছে।

তাহলে সমাধান কি?

আপনি পুরোপুরি রিস্ক ফ্রি থাকতে চাইলে প্রেমিকা/ প্রেমিককে বিয়ে করে ঘর সংসার শুরু করেন। এতে যৌন চাহিদাও পূরণ করতে পারবেন আবার একটি সুস্থ জীবন যাপনও করতে পারবেন।

See also  সিলেটের আবাসিক হোটেল, রিসোর্টের ভাড়া ও বুকিংয়ের জন্য মোবাইল নাম্বার (2024 updated)