আবাসিক এলাকায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা : এক দম্পতিসহ ৪ জন আটক

আবাসিক এলাকায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা : এক দম্পতিসহ ৪ জন আটক

নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা শহরের আবাসিক এলাকায় একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা পরিচালনা অভিযোগে এক দম্পতিসহ ২ মহিলাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার শহরের মিস্ত্রিপাড়া এলাকা থেকে তাদের আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলো পাবনা সদর উপজেলার বাবুপাড়ার লতিফ বিশ্বাসের ছেলে বাবু বিশ্বাস ও তাঁর স্ত্রী নীলফামারীর ডোমারের পশ্চিম চিকনমাটি চেয়ারম্যানপাড়ার রাব্বিনা বেগম এবং সৈয়দপুর শহরের মিস্ত্রিপাড়া মারুফা (২০) ও যশোর তালা উপজেলার সাতীরা কচুয়ার আব্দুস সাত্তারের মেয়ে শিখা ওরফে সীমা (২১)। এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শহরের মিস্ত্রিপাড়া মামা স্কুলের সামনে জনৈক ফয়েজ উদ্দিনের বাড়ি কিছুদিন পূর্বে মো.বাবু বিশ্বাস (৩০) ও রাব্বিনা বেগম (২৩) নামের এক দম্পতি বাড়িটি ভাড়ায় নেয়। তারা ওই ভাড়া বাড়িতে বিভিন্ন জায়গায় থেকে সুন্দরী মহিলাদের এনে দেহ ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। প্রায় প্রতিদিনেই ওই বাড়িতে অপরিচিত লোকজন আসা-যাওয়া করছিল। এ অবস্থায় এলাকার লোকজনের সন্দেহ হয়। বুধবার রাতে এলাকার লোকজন ওই বাড়ির আশেপাশে ওঁৎ পেতে থাকে। এ সময় ওই বাড়িতে বাইরের লোকজন এসে ঢুকলে এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট এলাকার পৌর কাউন্সিলর তারিক আজিজকে ঘটনাটি অবহিত থানায় খবর দিলে পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে এসে ভাড়া বাড়িতে দেহ ব্যবসা পরিচালনা অভিযোগে ভাড়াটিয়া বাবু বিশ্বাস ও তাঁর স্ত্রী রাব্বিনা বেগম দম্পতিকে আটক করে। কিন্তু পুলিশ আসার আগেই ওই বাড়িতে আসা বাইরের লোকজন কৌশলে সটকে পড়ে। এ সময় ওই বাড়ি থেকে মারুফা (২০) ও শিখা ওরফে সীমা (২১) নামের আরো ২ মহিলাকে আটক করা হয়।বাবু বিশ্বাস ও রাব্বিনা দম্পতি জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে বাড়ি ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা পরিচালনার করার কথা অপকটে স্বীকার করেছে। তাদের গ্রেফতারের কথা স্বীকার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে সৈয়দপুর থানার সেকেন্ড অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো.নওয়াব আলী নিশ্চিত করেছেন।

Source: http://www.chilahatiweb.com/2013/08/blog-post_6945.html

See also  গোপালগঞ্জে আবাসিক হোটেলে দেহ ব্যবসা, পতিতা-খদ্দেরসহ গ্রেপ্তার ৫